স্ত্রীকে উত্যক্ত করার প্রতিবাদ করায় স্বামীকে কুপিয়ে জখম করলো বখাটের দল

0
630

আমার লক্ষ্মীপুর ডট কম, লক্ষ্মীপুর, ফয়সাল কবির, ১৬ আগষ্ট: স্ত্রী’কে মোবাইল ফোনে বিরক্ত ও কুপ্রস্তাব দেয়ার প্রতিবাদ করায় লক্ষ্মীপুরে সুমন হোসেন (৩০) নামের এক যুবককে কুপিয়ে গুরুতর আহত করেছে বখাটেরা।
গত সোমবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় ২নং দক্ষিণ হামছাদী ৬নং জাহানাবাদ খাঁন বাড়ি এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। বর্তমানে আহত সুমন লক্ষ্মীপুর সদর হসপিটালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। সুমন জাহানাবাদ খাঁন বাড়ির সেকান্দর মিয়া ছেলে।
হামলায় আহত সুমনের স্ত্রী ইমু আক্তার জানান, জাহনাবাদ খান বাড়ির মফিজ উল্ল্যা ছেলে সবুজ (৩২), কাজল (৩০) একই এলাকায় খোরশেদ আলমের ছেলে আরিফ হোসেন (২৪), শরীফ হোসেন (১৯), মফিজ উল্যা ছেলে খোরশেদ আলম (৪০) আমার স্বামী সুমনকে কুপিয়ে ও শাশুড়ী জোস্না বেগমকে পিটিয়ে মারাত্মক জখম করে।
হসপিটালে চিকিৎসাধীন সুমন জানান, আমার স্ত্রী ইমু আক্তারকে মোবাইল ফোনে কু -প্রস্তাব ও বিভিন্ন সময় উত্যক্ত করতো শরিফ সহ তার সন্ত্রাসী বাহিনী।
বিষয়টি স্থানীয় গণ্যমান্যদের জানালে কয়েকবার সালিশ বৈঠক হয়।
গণ্যমান্য ব্যক্তিদের জানানোর অপরাধে মোঃ শরীফ ও তার অনুগত সন্ত্রাসীরা সোমবার সন্ধ্যায় পরিকল্পিতভাবে হত্যার উদ্দেশ্যে দেশীয় অস্ত্র, চাপাতি, লোহার রড দিয়ে এলোপাতাড়ি হামলা চালায়। এসময় হামলাকারীরা
আমার স্ত্রীর গলা থেকে সোনার চেইন ও আমার কাছে থাকা ১০ হাজার টাকা নিয়ে যায় । আমার আত্মচিৎকারে এলাকা ও বাড়ীর লোকজন এগিয়ে আসলে সন্ত্রাসীরা পালিয়ে চলে যায়।
অভিযুক্ত শরীফ ও সবুজ বলেন, আমরা ভাবি হিসেবে ইমু আক্তারকে ফোন করি। আমাদের অন্যকোন উদ্দেশ্য ছিলো না। আমরা কোন কু প্রস্তাব দেই নি। তবে সুমনকে মারধরের ব্যপারে তারা কোন কথা বলেন নি।
লক্ষ্মীপুর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ আজিজুর রহমান মিয়া জানান, এ বিষয়ে লিখিত অভিযোগ পাইনি। তবে অভিযোগ পেলে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।
নিউজ: ফয়সাল কবির।