রামগঞ্জে বসতঘরের দখল নিতে বাবা মায়ের বিরুদ্ধে ইউপি কার্যালয়ে ছেলের অভিযোগ

0
114

আমার লক্ষ্মীপুর ডট কম, রামগঞ্জ, ২৫ জুলাই:
জেলার রামগঞ্জ উপজেলার মধ্য করপাড়া গ্রামে বৃদ্ধ পিতা-মাতাকে সম্পত্তি থেকে উচ্ছেদ করে বসতঘর দখলে নিতে ভাড়াটিয়া লোক দিয়ে পাহারা বসিয়ে বসতঘরে ৫টি তালা ঝুলিয়ে দিয়েছে পুত্র ও পুত্রবধু। ঘরের দখল বুঝে নিতে বাবা-মায়ের বিরুদ্ধে ছেলে সালেহ আহম্মেদ বাবুল স্থানীয় ইউপি কার্যালয়ে দিয়েছেন অভিযোগ। বসতঘরে তালা দেওয়ায় বৃদ্ধ পিতা-মাতা ৬ দিন যাবত মানবেতর জীবন-যাপন করছে। সৃষ্ট ঘটনায় উক্ত এলাকার স্থানীয় মানুষের মাঝে দেখা দিয়েছে চরম ক্ষোভ ও সমালোচনা।
সূত্রে জানায়, উপজেলার মধ্য করপাড়া গ্রামের কুমুর ডাক্তার বাড়ির ৮৩ শতাংশ সম্পত্তি ক্রয় করে একটি পাকা ভবন নির্মান করে সন্তানদের নিয়ে ৪৮ বছর যাবত বসবাস করে আসছেন বৃদ্ধ মুনছুর আহমেদ (৮৫) এবং বৃদ্ধা দুলালী বেগম (৭০)।
চলতি মাসের ২০ জুলাই তাদের বড় পুত্র সালেহ আহমেদ বাবুল এবং পুত্রবধূ কামরুলের নেছা রুমী কয়েকজন ভাড়াটিয়া লোক এনে উক্ত বসতঘরের ৩টি কক্ষ, বাথরুমে তালা ঝুলিয়ে দিয়ে ৭ দিনের মধ্যে বসতঘর ছেড়ে হুমকি দেয় বয়স্ক পিতা-মাতাকে।
বৃদ্ধা মা দুলালী বেগম বলেন, বর্তমানে আমরা স্বামী-স্ত্রী ছাড়া বসতঘরে কেউ থাকে না। বয়সের কারনে বসতঘরের বাহিরে গিয়ে বাথরুম এবং গোসল করা সম্ভব হচ্ছে না।
বড় ছেলে তার স্ত্রীর নির্দেশে বসতঘরের আমাদের থাকার রুমসহ বাথরুমে রুমে তালা লাগিয়ে দিয়েছে। গ্রাম্য শালিসদার এটিএম নুরুজ্জামান মাস্টার বলেন, বৃদ্ধ মুনছুর আহমেদের বড় পুত্র সালেহ আহমেদ বাবুল ক্রয় সুত্রে উক্ত বসতঘরের মালিক হওয়ায় বাবুলের স্ত্রী ও সন্তানদের নামে রেজিষ্ট্রি করে দেয়। বর্তমানে উক্ত বসতঘরে দুই বয়স্ক মানুষ ছাড়া অন্য কেউ বসবাস করেন না। ওই বসতঘরসহ সম্পত্তি ছেলের স্ত্রী ও সন্তানরা দখলে নিতে করপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আদালতে একটি আবেদন করে। ইউনিয়ন পরিষদ আদালত কাগজপত্র দেখে বসতঘরের দখল ছেড়ে দিতে আদেশ দেয়।
আদালতের আদেশ পেয়ে ঐ বয়স্ক দম্পত্তির ছেলে স্ত্রী এলাকার কিছু লোকজনকে ঝড়ো করে বসতঘরের আসবাবপত্র ভাংচুর করে একটি রুমে রেখে তালা ঝুলিয়ে দেয়।
অভিযুক্ত সালেহ আহমেদ বাবুল বলেন, আমার টাকায় ক্রয় করা সাড়ে ৪২ শতাংশ সম্পত্তি আমার বাবা-মা বুঝিয়ে না দেয়ায় করপাড়া ইউনিয়ন পরিষদ আদালতে আবেদন করি। রায় পেয়ে উক্ত সম্পত্তির দখল বুঝে নিতে কয়েকটি রুমে তালা লাগিয়ে দিয়েছি।
মোহাম্মদিয়া বাজার পুলিশ ফাঁড়ির এস আই এমদাদুল হক এমদাদ বলেন, পিতা-মাতার বসতঘরে তালা মারার ঘটনায় ২৪ জুলাই সন্ধায় শুনেছি। তদন্ত করে ঘটনার সাথে জড়িতদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থায় নেওয়ায় হবে।

নিউজ: এডমিন।