প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ইংলিশ ল্যাঙ্গুয়েজ ক্লাব এর গুরুত্ব

0
741

মানসম্মত শিক্ষা, শেখ হাসিনার দীক্ষা; এই স্লোগানের মাধ্যমে সহজেই উপলব্ধি করা যায় বর্তমান সরকার মানসম্মত প্রাথমিক শিক্ষা নিশ্চিতকরনে বদ্ধপরিকর। ইতিমধ্যেই সরকারের আন্তরিকতা আমরা লক্ষ্য করেছি সহজ¯্রাব্ধ উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা অর্জনের মধ্য দিয়ে ।
সহজ¯্রাব্ধ উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রাতে সবার জন্য প্রাথমিক শিক্ষার যে লক্ষ্য ছিল তা আমরা নির্ধারিত সময়ের পূর্বেই অর্জন করে পৃথিবীতে নজির স্থাপন করেছি এবং দক্ষিন এশিয়ায় একটি অনুকরনীয় রাষ্ট্র হিসেবে স্থান করে নিয়েছি।
লেখনীর শিরোনাম দেখে অনেকে হয়ত এতক্ষনে আমার প্রতি বিরূপ ধারনা পোষন করে ফেলেছেন। বন্ধুরা আমরা যদি একটু গভীরভাবে চিন্তা করি তাহলেই এর প্রয়োজনীয়তা উপলব্ধি করতে পারব। প্রাথমিক পর্যায়ে যদি আমরা শিক্ষার্থীর মন থেকে ইংরেজি ভীতি দূর করে দিতে পারি তাহলে পরবর্তী শিক্ষান্তরে তার মধ্যে ইংরেজি নির্দিষ্ট কোন বিষয় মনে না হয়ে শুধুমাত্র একটি বিদেশি ভাষা হিসেবেই মনে হবে। আমরা জানি ইংরেজি একটি বিদেশী ভাষা এবং আন্তর্জাতিক ভাষা। আমরা আমাদের দেশকে যদি বিদেশের মাটিতে অথবা ভিনদেশি কারো কাছে উপস্থাপন করতে চাই তাহলে সেটা ইংরেজি ছাড়া অন্য কোন ভাষায় সম্ভব নয়। আমাদের দেশের আয়তনের তুলনায় জনসংখ্যা অত্যাধিক হওয়ায় সকলের কর্মসংস্থান দেশে করা সম্ভব নয়। তাই কাজের জন্য অনেককেই বিদেশে পাড়ি জমাতে হয়। তখন দেখা যায় ইংরেজিতে কথা বলতে না পারায় বেতন যা পাওয়ার কথা তার অর্ধেকের চেয়েও কম পায়। অর্থাৎ আমাদের প্রবাসীরা যদি ইংরেজিতে কথা বলতে পারদর্শী হয় তথাপি আমাদের রেমিটেন্স দ্বিগুন হয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা থেকে যায়।

যেহেতু প্রাথমিক শিক্ষা সকল ধরনের শিক্ষার ভিত্তিস্বরূপ সেহেতু ইংরেজি ভাষার চর্চা প্রাথমিক স্তর থেকেই শুরু করা প্রয়োজন। তাই আমি মনে করি বাংলাদেশের প্রত্যেকটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে একটি করে ইংলিশ ল্যাঙ্গুয়েজ ক্লাব থাকলে শিক্ষার্থীরা সেই ক্লাবের সদস্য হয়ে প্রতি সপ্তাহে একদিন ১ ঘন্টার জন্য হলেও যদি ইংরেজি ভাষার চর্চা করে তাহলে পরবর্তী শিক্ষাস্তরে তার মধ্যে ইংরেজি ভীতি থাকবে না।

এ ক্ষেত্রে শিক্ষার্থীরা তাদের প্রাত্যহিক জীবনে যে সকল কথা বলে থাকে সেগুলো নিয়ে বাংলার পাশাপাশি ইংরেজিতে চর্চা করবে। আমাদের শিক্ষকদের খেয়াল রাখতে হবে শিক্ষার্থীরা ইংরেজি চর্চার সময় ব্যাকরনগত ভুল ধরা যাবে না। শিক্ষার্থী তার মনের ভাব প্রকাশ করতে পারল কিনা সেটাই এখানে মূখ্য। আমাদের সকল শিক্ষার্থী হয়ত প্রাথমিক স্তর শেষ করে পরবর্তী শিক্ষাস্তর সম্পন্ন করতে পারে না। তাই এই ইংলিশ ল্যাঙ্গুয়েজ ক্লাব এর মাধ্যমে আমরা যদি তাদের মাঝে ইংরেজিতে কথা বলার অভ্যাস তৈরী করতে পারি তাহলে সে তার কার্মজীবনে গিয়ে কাজে লাগাতে পারবে এবং আমাদের দেশকে বিশ্ববাসীর কাছে সম্মানিত করতে পারবে।
আমাদের শিক্ষক সমাজের অনেকেই হয়ত আমার এই লেখা পড়ে বলবেন যে, আমাদেরকে দিয়ে বিভিন্ন ধরনের কাজ করানো হয়। এতো কাজের চাপে আমরা কীভাবে এই কার্যক্রমটি পরিচালনা করব। এক্ষেত্রে আমি বলব এটিকে কোন দায়িত্ব হিসেবে নেয়ার প্রয়োজন নেই। এটিকে বিদ্যালয়ের একটি সহশিক্ষা কার্যক্রম হিসেবে নিয়ে নেন। নাচ, গান, আবৃত্তি, খেলাধুলা, চিত্রাংকন প্রতিযোগিতার মত করে আপনি যদি দুএকদিন শিক্ষাথীদের সাথে বিষয়টি বুঝিয়ে দিতে পারেন তাহলে দেখবেন তারা নিজেরাই চর্চা করছে। তখন আপনাকে আর সময় দেয়া লাগবে না। নোয়াখালী জেলার চাটখিল উপজেলার পরকোট বালিকা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে এই ক্লাব আমার উদ্যোগে গত ০৭/০৭/২০১৯ ইং তারিখে উদ্ধোধন করা হয়। শিক্ষাথীদের মাঝে ইতিবাচক সাড়া পাওয়া যাচ্ছে। পাশাপাশি উপজেলার অন্যান্য বিদ্যালয়গুলোও এটি শুরু করেছে। পরিশেষে বলব ২০৪১ সালের মধ্যে আমরা উন্নত দেশ হিসেবে যদি বিশ্বের মানচিত্রে ঠাঁই করে নিতে চাই তাহলে ইংরেজি ভাষা শিখার কোন বিকল্প নাই। আর এই ইংরেজি ভাষা শিখতে হলে প্রাথমিক পর্যায় থেকে শুরু করতে হবে। ইংলিশ ল্যাঙ্গুয়েজ ক্লাব প্রাথমিক পর্যায়ের শিক্ষার্থীদের জন্য ইংরেজি ভাষা শিখার একটি চমৎকার প্লাটফর্ম হবে বলে আশা রাখি।

মোঃ শাহাদাত হোসেন
সহকারি উপজেলা শিক্ষা অফিসার
চাটখিল, নোয়াখালী।
মোবাইল- ০১৭৫০৫৩৫৮৮০
e-mail: mdshahadathossaindu@gmail.com