ছেলের মৃত্যুর কয়েকমাসের মাথায় বসতঘর পুড়ে ছাই হতদরিদ্র বাবুল মিয়ার

0
135

আমার লক্ষ্মীপুর ডট কম, রামগঞ্জ, ২৫ জুন: মাত্র কয়েকমাস আগে একমাত্র ছেলে উপজেলার কচুয়া বাজারে জননী বাস দূর্ঘটনায় মারা গেছেন। হতদরিদ্র কৃষক বাবা বাবুল মিয়া একমাত্র ছেলে ও উপাজর্নক্ষম সন্তানের মৃত্যুতে চোখে মুখে দেখেন অন্ধকার। নুন আনতে পানতা পুরিয়ে যাওয়া এ পরিবারের কর্তা বাবুল মিয়া স্থানীয়দের সহযোগীতার আশ্বাস ও আন্তরিকতায় নিজেকে কিছুটা দাঁড় করানোর চেষ্টা অব্যাহত রাখলেও রবিবার রাত ৯টায় গ্যাস সিলিন্ডার বিষ্ফোরনে মাথা গোঁজার ঠাঁই বসতঘরটি পুড়ে ছাই হয়ে যাওয়ায় মুষড়ে পড়েছেন। বাবুল মিয়ার কান্নায় স্থানীয় লোকজনসহ দেখতে আসা মানুষের মাঝে দেখা দেয় নতুন শোকের।
জানা যায়, রামগঞ্জ উপজেলার ভাদুর ইউনিয়নের সমেষপুর গ্রামের হতদরিদ্রকৃষক বাবুল মিয়ার বসতঘরটি রবিবার রাত ৯টায় গ্যাস সিলেন্ডারের আগুনে পুড়ে ছাই হয়ে যায়। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে যান, রামগঞ্জ থানার নবাগত অফিসার ইনচার্জ আনোয়ার হোসেন ও স্থানীয় চেয়ারম্যানসহ এলাকার গণ্যমান্য ব্যাক্তিবর্গ। সাধ্যমতো সহযোগীতার আশ্বাসও প্রদান করেন তারা।
কৃষক বাবুল মিয়া জানান, রবিবার রাতে স্থানীয় বাজার থেকে প্যাটোনেট কোম্পাসীর গ্যাস সিলিন্ডার ঘরে নিয়ে আসে। স্ত্রী গ্যাসের চুলোয় গ্যাস সিলিন্ডার থেকে সংযোগ দিতে গেলে পাইপটি লিকেজ হয়ে গ্যাস বাহির হতে থাকে এবং পাশে থাকা কুপিবাতি থেকে আগুনে লেগে মূহূর্তের মধ্যে আগুনের লেলিহান চারদিকে ছড়িয়ে পড়ে। রামগঞ্জ ফায়ার সার্ভিস ও স্থানীয় লোকজন ও রামগঞ্জ ফায়ার সার্ভিসের লোকজন প্রায় ১ ঘন্টা চেষ্টা করে আগুন নিয়ন্ত্রনে আনলেও বাবুল মিয়ার সকল স্বপ্ন আগুনে পুড়ে ছাই হয়ে যায়।
রামগঞ্জ ফায়ার সার্ভিস ভারপ্রাপ্ত ইনচার্জ মোঃ মফিজুর রহমান জানান, আগুনের খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে ১ ঘন্টা চেষ্টা করে আগুন আসে। গ্যাস সিলিন্ডার পাইপ লিকেজ হয়ে আগুনের সুত্রপাত হয়।
নিউজ: এডমিন।