বিদ্যালয়ের হারানো ঐতিহ্য ফেরাতে চান প্রাক্তণ শিক্ষার্থীরা

0
135

আমার লক্ষ্মীপুর ডট কম, লক্ষ্মীপুর, রাকিব হোসেন আপ্র, ১০জুন:
লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার ভবানীগঞ্জ বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের সাফল্য গাঁথা হারানো ঐতিহ্য ফেরাতে চান বিদ্যালয়টির প্রাক্তণ শিক্ষার্থীরা। বিদ্যালয়টিতে পড়ালেখার সুষ্ঠু পরিবেশ সুনিশ্চিত করতে চান তারা। যাতে অতীতের মতো আবারও পড়ালেখা, সংস্কৃতি চর্চা ও খেলাধূলায় অসামান্য অবদান রেখে শিক্ষার্থীরা বিদ্যালয়টির হারানো ঐতিহ্য ফিরিয়ে আনতে পারে।
সম্প্রতি ভবানীগঞ্জ বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয় হলরুমে আয়োজিত এক মতবিনিময় সভায় এমন সিদ্ধান্ত নেন বিদ্যালয়টির প্রাক্তণ শিক্ষার্থীরা। এসময় ১৯৭৩ সাল থেকে ২০১৯ সাল পর্যন্ত এসএসসি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ বিভিন্ন ব্যাচের প্রাক্তণ শিক্ষার্থীরা উপস্থিত ছিলেন। তারা বর্তমানে দেশের সরকারি-বেসরকারি বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ দপ্তরে কর্মরত রয়েছেন।

‘আমার বিদ্যালয়, আমাকেই কথা বলতে হবে’ এমন স্লোগানে ভবানীগঞ্জ বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের গৌরবোজ্জ্বল হারানো ঐতিহ্য ফেরাতে উদ্যোগ নেওয়া হয়। ফেসবুকে লেখালেখি ও বিভিন্নভাবে প্রাক্তণ শিক্ষার্থীদের সঙ্গে যোগাযোগের মাধ্যমে উদ্যোগটি গ্রহণ করেন ২০০৭ সালের এসএসসি ব্যাচের শিক্ষার্থী আরিফ চৌধুরী শুভ। তিনি বর্তমানে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগে মাস্টার্স অধ্যয়নরত রয়েছেন।

প্রাক্তণ শিক্ষার্থীদের মতামতের ভিত্তিতে একটি ফোরাম গঠন করার সিদ্ধান্তও নেওয়া হয় ওই মতবিনিময় সভায়। এসময় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, ভবানীগঞ্জ বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রাক্তণ শিক্ষার্থী ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারী অধ্যাপক মো. সাইফুল আলম, বাংলাদেশ সুপ্রীম কোর্টের আইনজীবী এম এন জামান, নৌ-বাহিনী কর্মকর্তা মো. ইকবাল হোসেন, প্রফেসর হারুনুর রশিদ বাবুল, মো. ছাইফুদ্দিন, মো. ইকবাল মাহমুদ, শাহনেওয়াজ লিয়ন প্রমুখ।

বক্তারা বলেন, ভবানীগঞ্জ বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ে পড়ালেখার সুষ্ঠু পরিবেশ নিশ্চিত করার লক্ষ্যে সুপরিকল্পিতভাবে কাজ করবে প্রাক্তণ শিক্ষার্থীদের সমন্বয়ে গঠিত ফোরাম। যেকোনো অসংগতি ও সমস্যা নির্মূল করার ক্ষেত্রে বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ স্বজনপ্রীতি কিংবা কোনো অনিয়মের আশ্রয় নিলে ঐক্যবদ্ধভাবে হস্তক্ষেপ করা হবে। এক্ষেত্রে সক্রিয়ভাবে কাজ করবে এই ফোরাম। শিঘ্রই জাকজমকপূর্ণ অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে এই ফোরামের আত্মপ্রকাশ ঘটবে বলেও জানান তারা।

নিউজ: রাকিব হোসেন আপ্র।