রামগঞ্জ ব্লাড ডোনার’স ক্লাবের ৫বর্ষে পদার্পণ

0
190

আমার লক্ষ্মীপুর ডট কম, রামগঞ্জ, ১২ মে: এক ঝাঁক তরুনের স্বপ্নই ছিলো অত্র উপজেলার থেলাসেমিয়া, ক্যান্সার, কিডনী, জরায়ু টিউমার অপসারন, দূর্ঘটনায় আহত, রক্তশূণ্যতা আক্রান্ত ও ডায়াবেটিকসহ সিজার (আংশিক) অপারেশনের রোগীদের রক্তদানে এগিয়ে আসা। অনেক বাধা, ত্যাগ ও সময়ের দিকে না তাঁকিয়ে কিছু কিছু ক্ষেত্রে কতিপয় সমালোচনাকারীদের ঘৃণিত চক্ষু উপেক্ষা করে ১২ মে ২০১৫ইং সনে আনুষ্ঠানিকভাবে শুরু হয় “রামগঞ্জ ব্লাড ডোনার’স ক্লাবের কার্যক্রম।
প্রবীণ চিকিৎসক ও সর্বজন শ্রদ্ধেয় ব্যক্তিত্ব ডাক্তার মোখলেছুর রহমানের সার্বিক দিকনির্দেশনায় ডেইলি নিউ এজ’র সাংবাদিক ফারুক হোসেন (মাহমুদ ফারুক), ফ্রান্স প্রবাসী মাহিব মিনহাজ ও বাংলাভিশন সংবাদ পাঠিকা ফাতেমা জান্নাত আইরিনের অক্লান্ত পরিশ্রমে কার্যক্রম দৃশ্যমান হলেও সাবেক মেয়র বেলাল আহম্মেদ ও বর্তমান মেয়র আবুল খায়ের পাটওয়ারীসহ শিক্ষাবিদ, পুলিশ প্রশাসন, রাজনীতিবিদ, সমাজসেবক, শিক্ষার্থী, সাধারণ মানুষ ও সাংবাদিকদের অগ্রসরমান পরামর্শ কাজের গতি জোরদার হয়।
প্রথম রক্তদাতা হিসাবে সংগঠনের কোষাধ্যক্ষ রায়হানুর রহমানের “এবি পজেটিভ” রক্তদানের মধ্যে দিয়ে রক্তদানের আনুষ্ঠানিক শুভ যাত্রা।
হাঁটি হাঁটি পা করে অত্র সংগঠন আজ ১২ মে ২০১৯ইং চার বছর পূর্তি ও ৫ম বর্ষে পদার্পণ। এ সময়ের মধ্যে রক্তদাতা, সদস্য ও শুভাকাঙ্খিদের নিরলস পরিশ্রমে ১৭০০+ ব্যাগ রক্তদান করেছেন রামগঞ্জ-লক্ষ্মীপুর-রায়পুর-ফরিদগঞ্জ-চাটখিল-হাজীগঞ্জ-মাইজদি-বেগমগঞ্জ-কুমিল্লা-চাঁদপুর-ঢাকা অঞ্চলের রক্তগ্রহীতাদের।
ব্লাড গ্রুপ ক্যাম্পেইন, শীতার্থদের মাঝে শীত বস্ত্র, গৃহ নির্মানে সহযোগীতা, ঈদে চিনি সেমাই বিতরন ও নতুন জামা প্রদান, অসহায় মানুষকে খাবার বিতরন, জটিল রোগীদের চিকিৎসা সেবায় সহযোগীতা প্রদান, বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ভেষজ ও ফলদ গাছের চারা রোপনসহ বিভিন্ন সামাজিক ও সেবামূলক কার্যক্রমে অংশগ্রহণ ছিলো অন্যতম।
সকাল, দুপুর, রাত বা গভীর রাত সংগঠনের সদস্যরা রক্তদানে এগিয়ে এসেছেন সাধ্যমতো। কখনো রক্তদানে কার্পণতা বা সংকোচ করেনি হাতের কাছে রক্ত থাকা অবস্থায়।
দিনরাত অক্লান্ত পরিশ্রম আর ত্যাগের বিনিময়ে বিগত বছরগুলোতে এ সংগঠনের কার্যক্রম ইর্ষনীয় সাফল্য বয়ে এনেছে। বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন স্বেচ্ছাসেবি সংগঠনের দেয়া সেরা পুরুস্কারেও ভূষিত করা হয় ।
আর্থিকভাবে লাভবান হওয়ার কোন সুযোগ না থাকলেও কতিপয় দুস্কৃতিকারীগণ এ সংগঠনের বিরুদ্ধে কুৎসা রটিয়ে ভালো কাজে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টির চেষ্টা চালিয়েছে। শক্তহাতে ঐসব মুখোশ পরিহীত সমাজের কীটদের শক্তহাতে দমন করা হলে কিছু ব্যাক্তির মুখোশ খসে পড়ে।
বর্তমানে আমাদের সংগঠনে রক্তদাতা সদস্য ৩শ+, সাধারণ সদস্য ৭শ+সহ হাজার হাজার উপকারভোগী সদস্য রয়েছেন।
বতর্মানে সংগঠনের নিজস্ব কার্যালয়ের সার্বিক তদারকি করেন, রামগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার খোন্দকার মোহাম্মদ রিজাউল করীম, প্রধান উপদেষ্টা ডাক্তার মোঃ মোখলেছুর রহমান, ডাক্তার শফিকুর রহমান ও বাহরাইন প্রবাসী ইউনুছ শহিদ প্রমূখ।
এছাড়া দেশে-বিদেশের অনেক শুভাকাঙ্খী, সংগঠনের প্রতিষ্ঠাকালীন সদস্যসহ প্রশাসনিক ব্যাক্তিবর্গ এ সংগঠনের বিভিন্ন কার্যক্রমে এগিয়ে আসেন সাধ্যমতো।
সকলের আসছে দিন সুখময় হোক এ কামনায়
মাহমুদ ফারুক
সভাপতি।